[Poem][newsticker]
Articles by "Poem"

 হঠাৎ এসেছে এক ছোঁয়াছে অন্ধকার

ভ্রুক্ষেপ নেই, থামছে না অযথা দরবার

মোমবাতি গলে গলে শেষ হয়ে গেছে

এখনই শুরু হবে অন্ধকারের কারবার।


অরণ্য জুয়েল



 

যত্ন করে রাখা থাকে

অনেক কিছু, তোমার দেয়া
প্রথম চুমু, প্রথমবারের হাত ধরা।
খুব গোপনে বইয়ে ভাঁজে
তোমার চিঠি, গোলাপ পাতা
লাল সাইকেল, পাগল পাড়া।
এখন কিন্তু না চাইলেও
আটকে থাকে বুকের ভেতর
তোমার দেয়া অবহেলা।
হৃদয় ভাঙ্গা কস্টগুলো
ভীষণ রকম কাপিয়ে তোলে
মাঝবয়সী রাতের বেলা।




আগুন, আগুন, আগুন জ্বলে
কেউ দেখেনা জ্বলছে কোথায়
ফাগুন দিনে আগুন জ্বলে
তোমার কথায়, তোমার ব্যথায়।

আগুন জ্বলে, আগুন বলে
প্রেম কি আর বিরহ মানে
থাকো তুমি আমার পাশে
জনম জনম তাকিয়ে রবো
তোমার পানে, তোমার পানে

ক্লান্তি সুখের খুনশুটি হোক
তোমার কানে, আমার কানে...

অরণ্য জুয়েল #অরণ্য_জুয়েল

মৃত্যুকালে তার কোন বয়স হয়নি
অথচ জমে ছিলো কত কত ঋণ
মৃত্যুকালে তার বয়স ছিলো শুন্য
অথচ চেহারাটা ছিলো মলিন।

আমার খুব মলিন হতে ইচ্ছে করে
মলিন হয়ে কাদিয়ে দিয়ে 
তাবৎ কিছু থামিয়ে দিয়ে
লুকিয়ে পড়ি একার মত বহু দুরে।

বহুদুরে, বহুদুরে 
সবকিছূ নিরব করে
একদিন নিরব করে... একদিন নিরব হয়ে।

অরণ্য জুয়েল


দহনকালের শেষে প্রিয়তমা তুমি ফিরবে.........

তোমার দিকে তাকালে 
বুকের ভেতর কি যেন হয়! 
তাড়া করে লোভ আর
ভালোবাসা না পাবার ভয়।

তবুও চোখ ফেরাতে পারি না
আমিও মানুষ, মাদকতা ঘিরে ধরে
মাথা ও মগজে, আমি একেবারই
নাদান, ভালোবাসার কারবারে।

তবে সত্য কথাটা কি জানো
একবারের প্রেমিকা জীবনভর 
প্রেমিকা হয়ে বেচে থাকে অন্তরে,
নিকষ কালো আঁধারে 
কেউ না দেখুক, কেউ না জানুক
সে ফিরে আসে বারে বারে।

তুমি ফিরবে, তুমি ফিরবে
এ হৃদয়ে, দহনকালের শেষে
প্রিয়তমা তুমি, ভালোবাসবে
আমার সম্মুখে এসে।

■ অরণ্য জুয়েল #অরণ্য_জুয়েল



পেরেছো কি সবটুকু নিতে
যা দিয়েছিলাম উজার করে
লোক চক্ষুর আড়াল হয়ে
বলা না বলার দেয়াল চিরে।

অথচ তোমার অহমিকা আর
আভিজাত্যের তুলনার ভারে
তুমি নিজেই গিয়েছো সরে 
প্রেমময়তা থেকে দুরে।

ভালোবাসার বিপরীতে অভিযোগ
মানাই না বালিকা তোমার 
সব মিছে হয় অবহেলায়
গাছ ঢেকে যায় পরগাছায়।

আমি শুধু পড়ি
কখনও তার ভাজে
কখনও তার প্রেমে,
পড়তে পড়তে
কখন যে চলে গেছি 
গভীর গহীনে নেমে,
সে কথা নিজেই গিয়েছি ভুলে
আজ আমি তার গভীর অতলে।

আমার উঠতে ইচ্ছে করে না
ডুবে থাকার গভীর ধুনে
প্রহরের পর প্রহর গুনে
তার বিহনেই থাকি আনমনা।

তবু কি সে জেনেছে
আমার বুকের ক্ষত,
কোন বিরহ আগুনে
পুড়ে যাই অবিরত।

কার অবহেলায় আমার
চোখ জুড়ে নোনা জল,
আমি কার অবজ্ঞায় 
কান্নায় বিহবল,
কেন আমি ছোট হতে হতে
খাটো হয়ে যাই?
সেকি বোঝে নাই? 

অরণ্য জুয়েল #অরণ্য_জুয়েল


কন্ঠজুড়ে শুধুই স্লোগান.....

সুধী মন্ডলী, 
আজ কবিতা শোনাবার দিন নয়
আজ কয়েকটি কথা না বললেই নয়
যখন কন্ঠস্বর থেকে স্বাধীনতার অবক্ষয়
যখন বেনিয়ারা ফিরে আসে নতুন সাজে
অথর্নীতি আটকে পড়ে কর্পোরেটের ভাজে
তখন কে কারে শোনাবে ভালোবাসার গান
বন্ধুগন,
আজ কবিতা নয়, কন্ঠজুড়ে শুধুই স্লোগান।

কৃৃষক যখন সোনার ফসল বেচে
খাজনা দিয়ে নিজের জন্য 
বাধ্য হয়ে কেনে শোষন
আপনারা কি দেখতে পান না
তার বুকজুড়ে, দাউ দাউ করে
জ্বলে ওঠে ক্ষোভের আগুন
তখন কে তারে শোনাবে ভাষন? 

যখন চারিদিকে হুঙ্কার করে 
বেজে ওঠে ধর্মান্ধতার দামামা
সেটা থামাতে করের টাকার পুলিশ
জঙ্গির কাছে হাতজোড় করে চেয়ে বসে ক্ষমা
তখন কে বসে শুনবে প্রেমের গান
বন্ধুগন,
আজ কবিতা নয়, কন্ঠজুড়ে বেজে উঠুক স্লোগান।

এখানে শুক্রবার আসলেই ভেঙ্গে যায় স্বপ্ন
বেকার ফিরে যায় তাচ্ছিল্যের সংসারে,
যখন বুক ফেটে যাওয়া আর্তনাতে
মেনে নিতে হয় প্রেমিকার দুরে সরে যাওয়া
তখন কে নিরবে বসে থাকতে পারে?

যখন বাম রাজনীতির দূর্বার যুবক
ঝড়া পাতার মত উড়তে উড়তে
পরে থাকে দূর্নীতিবাজ আমলার পায়ে
তখন কি লাভ মিথ্যা স্বপ্নের গান গেয়ে
কেউ কি পারে বেমালুম ভুলে যেতে
তার করা অশ্রুতে গড়া ইতিহাস
চোখের সামনে বেনিয়াদের উদোম নৃত্য আর পরিহাস
কে পারে সেটা মেনে নিতে ভুলে মান-সম্মান
বন্ধুগন,
আজ কবিতা নয়, কন্ঠজুড়ে বেজে উঠুক স্লোগান।
......

কন্ঠজুড়ে শুধুই স্লোগান কবিতার খন্ডিত অংশ।
অরণ্য জুয়েল #অরণ্য_জুয়েল
#কন্ঠ_জুড়ে_শুধুই_স্লোগান

MKRdezign

Contact Form

Name

Email *

Message *

Theme images by Jason Morrow. Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget